জনগণ টিকা নিতে না চাইলে মহামারী ঠেকানো যাবে না: ডব্লিউএইচও

প্রকাশিত: ১২:৫৬ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৪, ২০২০ | আপডেট: ১২:৫৬:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৪, ২০২০
জনগণ টিকা নিতে না চাইলে মহামারী ঠেকানো যাবে না: ডব্লিউএইচও

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা-ডব্লিউএইচও’র একজন বিশেষজ্ঞ সতর্ক করে বলেছেন, জন-অবিশ্বাস মহামারী প্রতিরোধে সবচেয়ে কার্যকর চিকিৎসা টিকাকে অকেজো করার ঝুঁকি তৈরি করবে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার টিকাদান বিভাগের পরিচালক ক্যাট ওব্রিয়েন এক সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেছেন।

তিনি বলেন, (পরিস্থিতি এমন হলে) ফ্রিজার, রেফ্রিজারেটর কিংবা শেলফে থাকা টিকাগুলো মহামারী প্রতিরোধে কোনো কাজেই আসবে না।

মার্কিন ওষুধ কোম্পানি ফাইজার এবং তার জার্মান অংশীদার বায়োটেক সোমবার তাদের সম্ভাব্য টিকা করোনা প্রতিরোধে ৯০ শতাংশ কার্যকর বলে ঘোষণা দিয়েছে।

ওব্রিয়েন এ ঘোষণাকে খুবই গুরুত্বপূর্ণ উল্লেখ করে বলেন, আরও কয়েকটি টিকার ফলাফলও খুব শিগগিরই জানা যাবে।

তিনি বলেন, সম্পূর্ণ পরীক্ষা শেষে এক বা একাধিক টিকা করোনা প্রতিরোধে যথেষ্ট কার্যকর হলে এটি হবে খুবই ভালো খবর।

একই সঙ্গে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে ডব্লিউএইচও’র এই কর্মকর্তা বলেন, ‘টিকা নিয়ে ক্রমবর্ধমান দ্বিধা এবং ভুল তথ্য ও অবিশ্বাসের কারণে বৈজ্ঞানিক অগ্রগতি নিয়ে মানুষের কাছে গ্রহণযোগ্যতা নষ্ট হবে।’

তিনি সতর্ক করে দিয়ে বলেন, জনগণ ভ্যাকসিন গ্রহণে অনিচ্ছুক হলে মহামারী প্রতিরোধে বিশ্ব সফল হবে না।

এ জন্য জনগণের আস্থা বাড়াতে আরও কিছু করা প্রয়োজন বলেও উল্লেখ করেন ওব্রিয়েন।

টিকা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, একটি নিরাপদ ও কার্যকর টিকা তৈরি এভারেস্টে বেইজ ক্যাম্প স্থাপন করার মতো। কিন্তু মূলত টিকার কার্যকারিতা এভারেস্টের চূড়ায় ওঠার মতো।