ঢালচরে ১টি খাল খননে ঘুরে দাঁড়াবে অর্থনীতির চাকা

প্রকাশিত: ১:১৪ অপরাহ্ণ, মে ২, ২০২০ | আপডেট: ১:১৪:অপরাহ্ণ, মে ২, ২০২০
ঢালচরে ১টি খাল খননে ঘুরে দাঁড়াবে অর্থনীতির চাকা

ইলিশের মৎস্যঘাট খ্যাত ভোলার চরফ্যাসন উপজেলার দক্ষিণ আইচা থানার ঢালচরে একটি খাল খনন করা করা হলে অর্থনীতির চাকা ঘুরে দাঁড়াবে। যা থেকে রাজস্ব আয়ও আসবে বিপুল পরিমাণে। এমনটায় দাবি তুলেছেন জেলেরা।

বুধবার বিকেলে জেলা প্রশাসকের নির্দেশে তদন্ত কমিটির সদস্য সহকারী কমিশনার (ভুমি) শাহীন মাহমুদ ঢালচর তদন্তে গেলে জেলেরা খাল খননের দাবীতে একথা বলেন।

বঙ্গোপসাগরের কোল ঘেঁষে অবস্থিত ভোলা জেলার চরফ্যাসন উপজেলার দক্ষিণ আইচা থানার ঢালচর ইউনিয়নের অবস্থান। স্থায়ী বাসিন্দাসহ জেলার অনেক উপজেলার মৎস্য ব্যবসায়ীদের কোটি কোটি টাকার ইলিশ ব্যবসা রয়েছে। জেলার সিংহভাগ ইলিশ আহরণ হয় ঢালচর থেকে। স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে ঢাকা রপ্তানী করে জীবিকা নির্বাহ করছে ঢালচরের ১৭ হাজার ৫ শত পরিবার। যার মধ্যে ১ হাজার ৩ শত ৫০ জন সরকারী ভাবে নিবন্ধিত।

ঢালচরের চেয়ারম্যান আবদুস সালাস হাওলাদার জানান, নদী ভাঙ্গনের ফলে ঢালচরের অর্ধেকের বেশী এলাকাজুড়ে নদী গর্ভে বিলীন হয় । ফলে খালগুলোও নদীতে পরিনত হয়েছে। ঐ এলাকায় কোন খাল না থাকায় জেলেরা দুর্যোগকালীন সময়ে কোথায়ও আশ্রয় নেওয়ার সুযোগ নেই। খাল ছাড়া জেলেদের নৌকা, ট্রলার নিরাপদে রাখা সম্ভব নয়! আর জেলেদের ধরা মাছ’ই হলো ঢালচরের আয়ের একমাত্র উৎস। ইলিশ মৌসুম শুরুর আগেই বরিশাল, ভোলা, দৌলতখাঁন, নুরাবাদ, সামরাজ, বেতুয়ার মালিকানাধীন ট্রলার খালে এসে অবস্থান করত। বর্তমানে ঢালচর মাঝের চর খালটি খনন করলে মাছ ধরা সকল প্রকার ট্রলার, বোট সাগর থেকে এসে খালে আশ্রয় নিতে পারবে, যার ফলে ঘুরে দাঁড়াতে পারে ঢালচরের মৎস্য অর্থনীতির চাকা।

উল্লেখ্য, ঢালচর ইউনিয়নের চেয়ারম্যানসহ একটি সচেতন মহল মাঝিদের মাছ ধারা নৌকা সংরক্ষণের জন্য একটি খাল খননের উদ্যোগ গ্রহণ করে। পরবর্তিতে এখানকার জেলেরা নিজেরাই পরিশ্রম করে একটি খাল খননের কাজ শুরু করে। কিন্তু এতে বাঁধা দেয় বন বিভাগ। পরে কিছু সংখ্যক জেলের নামে মামলা দায়ের করে কর্তৃপক্ষ। পরবর্তীতে জনপ্রতিনিধিদের দাবির প্রেক্ষিতে জেলা প্রশাসকের নিদের্শে সারেজমিনে তদন্ত করতে আসেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) শাহীন মাহমুদ।