পাপিয়াদের পেছনে যারা, তারাও নজরদারিতে: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত: ১২:০০ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ১, ২০২০ | আপডেট: ১২:০০:পূর্বাহ্ণ, মার্চ ১, ২০২০
পাপিয়াদের পেছনে যারা, তারাও নজরদারিতে: ওবায়দুল কাদের

নরসিংদী জেলা যুব মহিলা লীগের বহিষ্কৃত সাধারণ সম্পাদক শামীমা নূর পাপিয়ার পেছনে যারা আছেন, তারাও নজরদারিতে রয়েছেন বলে জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

শনিবার আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমণ্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান।

ওবায়দুল কাদের বলেন, শুধু পাপিয়া নয়, অপকর্ম, সন্ত্রাস, দুর্নীতি ও মাদকের সঙ্গে যারাই জড়িত, তারাও নজরদারিতে আছেন। আর পাপিয়াদের পেছনে যারা আছেন, তারাও নজরদারির বাইরে নন। টার্গেট পূরণ না হওয়া পর্যন্ত অভিযান অব্যাহত থাকবে।

তিনি বলেন, দেশের যে প্রান্তেই হোক, অপকর্ম, সন্ত্রাস, দুর্নীতি, জঙ্গিবাদ ও মাদকের সঙ্গে দলের লোকজনও জড়িত থাকলে তারাও রেহাই পাবেন না। তারা নজরদারিতে চলে এসেছেন। থেমে থেমে তাদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করা হবে। এছাড়া এসব অপকর্মের পেছনে যারা কলকাঠি নাড়ছেন, তারাও রেহাই পাবেন না।

বিদ্যুৎ ও পানির মূল্যবৃদ্ধির বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, পানি ও বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত করতেই কিছুটা দাম বাড়ানো হয়েছে। এই সামান্য মূল্যবৃদ্ধিতে জনগণের ভোগান্তি হবে না। সরকার বিদ্যুতে যেমন ভর্তুকি দিচ্ছে, পানিতেও সেরকম ভর্তুকি দেওয়া লাগছে। তবে বিদ্যুতের ক্ষেত্রে কৃষকের ভর্তুকি খুব কম ধরা হয়েছে। আর উৎপাদনের খরচ সমন্বয়ের জন্য পানির দাম বৃদ্ধি করা হয়েছে।

তিনি বলেন, মুজিববর্ষে আমরা শতভাগ বিদ্যুতের ব্যবহার নিশ্চিত করতে চাই। প্রত্যেক ঘরে আমরা বিদ্যুতের আলো জ্বালাতে চাই। সামনে গরমের সিজন, লোকজন যেন কষ্ট না পায়- সেজন্য আমরা বিদ্যুৎ ব্যবস্থা নিরবচ্ছিন্ন করতে চাই। একটু কষ্ট হলেও জনগণ এর সুবিধা পাবে।

বিএনপির বিক্ষোভ প্রসঙ্গে সেতুমন্ত্রী বলেন, বিএনপি কার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করছে? তারা বিক্ষোভ করছে আদালতের বিরুদ্ধে। এ বিক্ষোভ কোনো রাজনৈতিক দল কিংবা ওই দলের নেতাদের বিরুদ্ধে নয়। আদালত খালেদা জিয়াকে জামিন দেয়নি বলেই তারা এ কর্মনূচি পালন করছে। এটা আদালতের বিরুদ্ধে অঘোষিত একটা কর্মসূচি।

চীনে করোনা ভাইরাসের কারণে পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজে প্রভাব পড়বে কি-না- সাংবাদিক এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, প্রায় এক হাজারের মত চীনা নাগরিক পদ্মা সেতুতে কাজ করেন। এখান থেকে ১৫০ জন ছুটিতে দেশে গেছেন। যদি দুই মাসের মধ্যে করোনা ভাইরাসের কোনো উন্নতি না হয়, তাহলে পদ্মা সেতুর কাজে সামান্য বিঘ্ন ঘটবে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, তবে পদ্মা সেতুর কাজ থেমে থাকবে না। কয়েকদিন আগেও ২৫তম স্প্যান বসানো হয়েছে। আগামী সপ্তাহে আরেকটি স্প্যান বসানোর কথা রয়েছে। তারা যদি ছুটি থেকে না আসতে পারেন, তাহলে কাজের কিছুটা সমস্যা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক প্রকৌশলী আবদুস সবুর এবং এবং উপ-দফতর সম্পাদক সায়েম খান।