ভোলায় পৌনে তিন লাখ শিশুকে খাওয়ানো হবে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল

প্রকাশিত: ১০:১৯ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৯, ২০২০ | আপডেট: ১০:২০:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৯, ২০২০
ভোলায় পৌনে তিন লাখ শিশুকে খাওয়ানো হবে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল

জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইনের ২য় রাউন্ডে ভোলা জেলার সাত উপজেলায় প্রায় পৌনে তিল লাখ শিশুকে খাওয়ানো হবে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল।

১১ জানুয়ারী শনিবার জেলার ৬-১১ মাস বয়সী ৩১ হাজার ৯৭ জনকে এক লাখ ইউনিটের ১টি করে নী রংয়ের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল ও ১২-৫৯ মাস বয়সী ২ লাখ ৪৩ হাজার ৮২৪ জন শিশুকে দুই লাখ ইউনিটের লাল রংয়ের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়া হবে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ভোলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সভাকক্ষে জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে সাংবাদিকদের এক ওরিয়েন্টেশন কর্মশালায় এ তথ্য জানান ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জন ডা. তৈয়বুর রহমান।

তিনি আরো জানান, ভোলার জেলার কোন শিশু যাতে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল থেকে বাদ না পরে সেজন্য জেলায় ১ হাজার ৭৮৯ টি টিকা কেন্দ্রে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। এর মধ্যে ভোলা সদর ৩২৭ টি, দৌলতখানে ২২৯ টি, বোরহানউদ্দিনের ২২৯ টি, লালমোহনে ২২৯, তজুমদ্দিনে ১২৯ টি, চরফ্যাশনে ৪৭৯ টি এবং ভোলা পৌরসভায় ৩০ টি, লালমোহন পৌরসভায় ২৯ টি এবং চরফ্যাশন পৌরসভা এলাকায় ২৯ টি টিকা দান কেন্দ্রে থাকবে এ ক্যাম্পেইন চলবে।

এছাড়াও এসময় টিকাদান কেন্দ্রে জেলায় মোট ৩ হাজার ৮৬৮ জন স্বাস্থ্য কর্মী ও স্বেচ্ছাসেবক কাজ করবেন। এদের মধ্যে ভোলা সদরে ৬৮৬ জন, দৌলতখান ৪৮৬ জন, বোরহানউদ্দিনে ৪৯৩ জন, লালমোহনে ৫১২ জন, তজুমদ্দিনে ২৮৪ জন চরফ্যাশনে ১০২০ জন এবং ভোলা পৌরসভায় ৬২ জন, লালমোহন পৌরসভায় ৬০ জন এবং চরফ্যাশন পৌরসভায় ৫৮ জন কাজ করবে।
এসময় তিনি আরো জানান, ভিটামিন এ ক্যাপসুল শিশুদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি ভিটামিন। শিশুদের মানসিক বিকাশ থেকে শুরু করে বিভিন্ন রোগ নিরাময়ে এটি কাজ করে।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, জেলা পরিবার পরিকল্পনার উপ-পরিচালক মাহামুদুল হক আজাদ, ভোলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি এম হাবিবুর রহমানসহ বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক্স সাংবাদকিরা উপস্থিত ছিলেন।