মনপুরায় প্রেমের ফাঁদে ফেলে তরুণীকে ধর্ষণ, আটক ১

ছালাহউদ্দিন ছালাহউদ্দিন

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ৯:০২ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৪, ২০১৯ | আপডেট: ৯:০৩:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৪, ২০১৯
মনপুরায় প্রেমের ফাঁদে ফেলে তরুণীকে ধর্ষণ, আটক ১

ভোলার মনপুরা উপজেলায় আবারও এক তরুনীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ৬ মাস ধরে ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে মো. রাকিব সওদাগর নামের এক যুবককের বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় সোমবার সকালে ধর্ষিতা বাদী হয়ে মনপুরা থানায় রাকিবের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। দুপুরের দিকে রাকিব সওদাগরকে তার নিজ বাড়ি উপজেলার সোনাচর এলাকা থেকে তাকে আটক করে আদালতে প্রেরণ করলে আদালত তাকে জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেয়।

পরে আদালত থেকে ওই যুবককে ভোলা জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে জানান মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এস.আই সন্জিব কুমার পাহলান।

ধর্ষণ মামলার আটককৃত যুবক হলেন, হাজিরহাট ইউনিয়নের সোনারচর গ্রামের ১নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মোঃ কাঞ্চন মিয়ার ছেলে মোঃ রাকিব সওদাগর (২৪)।

এদিকে সোমবার দুপুরে লঞ্চযোগে পুলিশ হেফাজতে ধর্ষিতা ওই তরুণীকে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য ভোলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেছে পুলিশ।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ছয় মাস পূর্বে অভিযুক্ত আসামী যুবক রাকিব সওদাগর মাষ্টার হাট নানার বাড়িতে বেড়াতে গেলে ওই তরুণীর সাথে পরিচয় হয়। পরে সর্ম্পক প্রেমে পরিণত হয়। একপর্যায়ে রাতে রাকিব সওদাগর দেখা করতে গেলে ওই তরুণীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। বিয়ের প্রলোভনে এই ঘটনা কাউকে বলতে বারণ করে। একইভাবে রাকিব সওদাগর দীর্ঘদিন ওই তরুণীকে ধর্ষণ করে। ৩ নভেম্বর রোববার রাতে রাকিব সওদাগর একই প্রলোভনে ধর্ষণ করলে চিৎকার করলে রাকিব পালিয়ে যায়।

মনপুরা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাখাওয়াত হোসেন জানান, তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা নেওয়া হয়েছে। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত আসামী ধর্ষক রাকিব সওদাগরকে আটক করে আদালতে প্রেরণ করে।