মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে হেরে গেল আরও দুই শিশু

প্রকাশিত: ১:২২ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৩১, ২০১৯ | আপডেট: ১:২৫:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৩১, ২০১৯
মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে হেরে গেল আরও দুই শিশু

রাজধানীর রূপনগরে বেলুন ফোলানোর গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণের ঘটনায় মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে হেরে গেল আরও ২ শিশু। এ ঘটনায় নিহতের সংখ্যা দাড়ালো ৭-এ।

বুধবার দিবাগত মধ্যরাত ও বৃহস্পতিবার ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারা মারা যায়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রূপনগর থানার থারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম আজাদ। তিনি জানান, এ ঘটনায় মধ্যরাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শিশু নিহাদ ও পঙ্গু হাসপাতপালে চিকিৎসাধীন শিশু রিয়ার মৃত্যু হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, রিয়ার মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। একই উদ্দেশ্যে নিহাদের মরদেহটি ঢামেক হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

এ ঘটনায় ঘটনাস্থলে নিহত বাকি ৫ শিশু হলো- শাহিন (১০), নূপুর (৭), ফারজানা (৯), জান্নাত (১৪) ও রমজান (৮)।

এদিকে সিলিন্ডার বিস্ফোরণে হতাহতের ঘটনায় বেলুন বিক্রেতা আবু সাঈদকে (৩০) প্রধান আসামি করে মামলা করেছে পুলিশ। তাকে পঙ্গু হাসপাতাল থেকে গ্রেফতার করে ঢামেকে পুলিশি প্রহড়ায় চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

বুধবার বেলা ৩টা ৪৫ মিনিটে মনিপুর স্কুলের রূপনগর শাখার বিপরীতে ১১ নম্বর সড়কে ওই বিস্ফোরণ হয়। নিহতরা সবাই পাশের শিয়ালবাড়ি বস্তির বলে জানা গেছে।

বুধবার রূপনগর থানার শিয়ালবাড়ি বস্তির শিশুরা গিয়েছিল বেলুন কিনতে। ভ্যানগাড়িতে করে বেলুন বিক্রি করতেন ওই বেলুনওয়ালা। সিলিন্ডারের গ্যাসে ফোলাতেন বেলুন। সেই সিলিন্ডার হঠাৎ বিস্ফোরিত হয়। পথের মধ্যেই লাশ হয় চার শিশু। একজনের লাশ পাওয়া যায় বস্তিতে। এতে আহত হয় ১৭ জন।

মুহূর্তেই পুরো এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। নিহতের স্বজনদের আহাজারি ও আহতদের নিয়ে ছোটাছুটি শুরু হয়।

এদিকে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণের খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক হাসপাতালে ছুটে আসেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান। তিনি বলেন, এ ঘটনা সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অবহিত করা হয়েছে। আহত ও নিহতদের পাশে দাঁড়াতে তিনি নির্দেশনা দেন।