‘ওদের মাঝে বিকালটা কাটাতে খুব ভালোই লাগে’

প্রকাশিত: ৩:১২ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৯ | আপডেট: ৩:৩১:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৯
‘ওদের মাঝে বিকালটা কাটাতে খুব ভালোই লাগে’

নিজের একটু ইচ্ছা আর সামান্য শ্রম দিলেই কিন্তু আপনার বাড়ির ছাদ হয়ে উঠতে পারে একখণ্ড সবুজের আঙিনা। গ্রামের উর্বর মাটিতে যে ফুল, ফল কিংবা সবজি বাগান আমরা দেখে মুগ্ধ হই, আগ্রহ থাকলে তাকে তুলে আনা সম্ভব শহরের বহুতল ভবনের ছাদেও। নিজেদের হাতে ফলানো যেতে পারে বিষমুক্ত ফলমূল, শাক-সবজি। এভাবে মেটানো যেতে আমাদের দৈনন্দিন পুষ্টির চাহিদাও। ঠিক তেমন-ই ভোলার চরফ্যাসনে ভালোবাসায় ছোঁয়ায় দৃষ্টিনন্দন ছাদ বাগান গড়ে তুলেছেন সাংবাদিক ইয়াছিন আরাফাত।

চরফ্যাসন পৌর শহরের খাসমহল মসজিদ সংলগ্ন তার পাঁচ তলা বাড়ির পুরো ছাদ দৃষ্টিনন্দন ফলের বাগানে সাজিয়েছেন। তার ছাদের যেদিকে চোখ যায়, শুধু ফল গাছ। ফলে ফলে ছেয়ে গেছে ছাদের সাজানো বাগান। ফলেছে নানান রঙের ফল।

সারি সারি টবে রাখা গাছগুলো যে কারো নজর কাড়তে সক্ষম। বিভিন্ন জাতের দেশি-বিদেশি জাতের ফল, ওষুধি ও শোভাবর্ধন গাছ রয়েছে। তার বাগানে যেসব গাছ আছে, তার মধ্যে কয়েকটি হলো- আম, জাম্মুরা, মাল্টা, কমলা, পেয়ারা, আমলকি।

দৃষ্টিনন্দন এই বাগান তৈরি করা সম্পর্কে জানতে চাওয়া হলে ইয়াছিন আরাফাত বলেন, এটা আমার স্বপ্নের সফলতা, অনেক পরিশ্রমের শখের ছাদ বাগান। ওদের মাঝে বিকালটা কাটাতে খুব ভালোই লাগে। আমার লক্ষ্য একটাই- প্রতিটি জায়গায় হোক গাছের আবাস। প্রতিটি গাছই হোক মানুষের বেঁচে থাকার হাতিয়ার।

তিনি জানান, অধিক জনসংখ্যার এই দেশে অপরিকল্পিতভাবে যেখানে-সেখানে ভবন নির্মাণের ফলে হারিয়ে যাচ্ছে বাগান করার উপযুক্ত জায়গা। বাড়ির ছাদে সবুজ বাগান গড়ে তুলতে তাই এই প্রয়াস। শুধু তিনি একা নন বন্ধুবান্ধব ও প্রতিবেশীদের বাড়ির ছাদে বাগান করতে উৎসাহ দিয়ে যাচ্ছেন ইয়াছিন আরাফাত।