আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় থাকলে কেউ না খেয়ে থাকবেনাঃ বেগম মতিয়া চৌধুরী

প্রকাশিত: ১১:৩০ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২২ | আপডেট: ১১:৩৭:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২২
আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় থাকলে কেউ না খেয়ে থাকবেনাঃ বেগম মতিয়া চৌধুরী

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, সাবেক কৃষি মন্ত্রী ও কৃষি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি বেগম মতিয়া চৌধুরী এমপি বলেছেন, ‘জাতীর  পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা যে স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে চাচ্ছেন, সুখী-সুন্দর বাংলাদেশ এবং প্রত্যেকের ঘর থাকবে, শিক্ষায় আলোকিত হবে। আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় থাকলে কেউ না খেয়ে থাকবেনা। অন্য, বস্ত্র, শিক্ষা ও চিকিৎসাসহ প্রত্যেকের মাথা গোঁজার ঠাই হবে। এমন দৃঢ় প্রত্যয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী অনড়।’

শনিবার দুপুর ১২ টায় চরফ্যাসন ব্রজগোপাল টাউনহলে ভোলা-৪ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যক্ষ এম এম নজরুল ইসলামের ৩০তম মৃত্যু বার্ষিকীর স্বরণসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বেগম মতিয়া চৌধুরী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘দেশের জনগন আবারও নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে সরকারের উন্নয়ন ও অর্জনের ধারাবাহিকতা ধরে রাখবে। সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম ছিলেন দক্ষিণ ভোলার আলোকিত একজন মানুষ। তার মৃত্যুর পরে তারই সুযোগ্য পুত্র আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব ওই এলাকার এমপি হয়ে ভোলা-৪ আসনে অভূতপূর্ব উন্নয়ন করে পিতার স্বপ্ন বাস্তবায়ন করেছেন।’

এসময় তিনি বিএনপির সমালোচনা করে বলেন, ‘আওয়ামীলীগের উন্নয়ন বিএনপির চোঁখে পড়েনা। তারা বোমাবাজির রাজনীতি করে। তারা লাঠি দিয়ে মানুষ মারার রাজনীতি করে।’

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন আখনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, মরহুম অধ্যক্ষ এম এম নজরুল ইসলামের জোষ্ঠ্য পুত্র যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও ভোলা-৪ আসনের সংসদ সদস্য আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব এমপি। অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, ভোলা জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ফজলুল কাদের মজনু মোল্লা, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল মমিন টুলু, চরফ্যাসন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম ভিপি, চরফ্যাসন পৌর মেয়র মো. মোরশেদ, চরফ্যাসন প্রেসক্লাব সভাপতি আবুল হাসেম মহাজন প্রমুখ।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন চরফ্যাসন পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মনির আহামেদ শুভ্র।

এর আগে বেলা সাড়ে ১১ টায় অধ্যক্ষ এম এম নজরুল ইসলামের কবর জিয়ারত করেন বেগম মতিয়া চৌধুরী এমপি। পরে শেখ রাসেল শিশু ও বিনোদন পার্ক এবং জ্যাকব টাওয়ার পরিদর্শন শেষে স্বরণ সভায় যোগ দেন।