মনপুরায় মেঘনায় নিখোঁজ এক শিশু

ছালাহউদ্দিন ছালাহউদ্দিন

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ৮:২৪ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৩১, ২০২২ | আপডেট: ৮:২৪:অপরাহ্ণ, আগস্ট ৩১, ২০২২
মনপুরায় মেঘনায় নিখোঁজ এক শিশু

ভোলার মনপুরায় মেঘনায় বন্ধুদের সাথে সাঁতার কাটতে গিয়ে ২১ ঘন্টা ধরে নিখোঁজ রয়েছে সাত বছরের এক শিশু। এদিকে নিখোঁজ শিশুটি উদ্ধার না হওয়ায় পরিবারের সদস্যদের মাঝে উৎকন্ঠা বিরাজ করছে। এছাড়াও শিশুটির মা বারবার মূর্ছা যেতে দেখা গেছে।

এদিক নিখোঁজ শিশুটিকে উদ্ধারে ফায়ার সার্ভিস ও কোস্ট গার্ডের পৃথক পৃথক দল মেঘনায় অভিযান করছে বলে নিশ্চিত করেন মনপুরা ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের দায়িত্বে থাকা মোঃ ফজলুর রহমান ও মনপুরা কোস্ট গার্ডের স্টেশন কমান্ডার মোঃ আসলামুল হক।

বুধবার বেলা ১২ টায় পর্যন্ত শিশুটি নিখোঁজ রয়েছে। এর আগে মঙ্গলবার বিকেল ৫ টায় উপজেলার মনপুরা ইউনিয়নের কাউয়ারটেক এলাকার পশ্চিম পাশের মেঘনায় সাঁতার কাটতে গিয়ে নিখোঁজ হন শিশুটি।

নিখোঁজ শিশুটি হলেন, উপজেলার মনপুরা ইউনিয়নের কাউয়ারটেক গ্রামের ৮ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মোঃ মিরাজের শিশু সন্তান মোঃ রিয়াদ (৭)।

নিখোঁজ শিশুটির বাবা মিরাজ জানান, মঙ্গলবার বিকেলে কাউয়ারটেক বেড়ীর পারে অন্যান্য শিশুদের সাথে খেলছিল শিশু রিয়াদ। পরে বন্ধুদের সাথে মেঘনায় সাঁতার কাঁটতে গিয়ে স্রোতের টানে নিখোঁজ হন শিশুটি।

এই ব্যাপারে মনপুরা ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের দায়িত্বে থাকা ফজলুর রহমান জানান, খবর পেয়ে নিখোঁজ শিশুটিকে উদ্ধারে মঙ্গলবার বিকেলে মেঘনায় অভিযান চালায় ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। পরে রাত হয়ে যাওয়ায় উদ্ধার তৎপরতা বন্ধ থাকে। পরে বুধবার সকাল থেকে উদ্ধার শুরু হলেও দুপুর ১২ টা পর্যন্ত উদ্ধার করা যায়নি বলে জানান তিনি।

এই ব্যাপারে মনপুরা কোস্টগার্ডের স্টেশন কমান্ডার মোঃ আসলামুল হক জানান, বুধবার দুপুর ১২ টা পর্যন্ত নিখোঁজ শিশুটিকে উদ্ধার করা যায়নি। তবে শিশুটিকে উদ্ধারে কোস্টগার্ডের তৎপরাত অব্যাহত রয়েছে।

এই ব্যাপারে মনপুরা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাইদ আহমেদ জানান, নিখোঁজ শিশু উদ্ধারে অনুসন্ধান অব্যাহত রয়েছে।