নিখোঁজের পর ঢাবির সাবেক অধ্যাপকের মরদেহ উদ্ধার

প্রকাশিত: ৮:২১ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৪, ২০২২ | আপডেট: ৮:২১:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৪, ২০২২
নিখোঁজের পর ঢাবির সাবেক অধ্যাপকের মরদেহ উদ্ধার

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক সাইদা গাফফারের (৭১) লাশ গাজীপুর থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার সকালে গাজীপুর মহানগরীর দক্ষিণ পাইনশাইল এলাকার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক আবাসন প্রকল্পের ভেতরে একটি ঝোপের ভেতর থেকে গলায় ওড়না প্যাঁচানো অবস্থায় লাশটি উদ্ধার করা হয়।

তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পুষ্টি ও খাদ্যবিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক ছিলেন।

এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে মো. আনোয়ারুল ইসলাম (২৫) নামে এক যুবককে আটক করা হয়েছে। তিনি সাইদা গাফফারের বাড়িতে রাজমিস্ত্রির কাজ করতেন।

কাশিমপুর থানার ওসি মাহবুবে খোদা বলেন, সাঈদা গাফফারের লাশ একটি ঝোপের মধ্যে পড়ে আছে এমন খবর পুলিশকে জানায় রাজমিস্ত্রি আনোয়ারুল ইসলাম। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ওই অধ্যাপকের গলায় ওড়না প্যাঁচানো অবস্থায় লাশ পড়ে থাকতে দেখে। পরে তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

অধ্যাপক সাইদা গাফফার কাশিমপুরের পানিশাইল এলাকার মোশারফ মৃধার বাসায় ভাড়া থাকতেন। তিনি সেখান থেকে নিজের নির্মাণাধীন প্রজেক্টের দেখাশোনা করছিলেন। ওই বাসা থেকে আনুমানিক ২০০ গজ দূরে তার লাশটি পাওয়া যায়। এর আগে গত ১২ জানুয়ারি সাইদা গাফফারের নিখোঁজের ঘটনায় পর দিন তার মেয়ে সাদিয়া কাশিমপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন।

ওসি বলেন, গ্রেপ্তার ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। ধারণা করা হচ্ছে আর্থিক লেনদেন বা পূর্ব শত্রুতার জেরে ওই অধ্যাপককে হত্যা করা হয়ে থাকতে পারে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেয়ে বিস্তারিত জানা যাবে।

এ ঘটনায় নিহতের ছেলে সাউদ ইফখার জহির বাদী হয়ে গ্রেপ্তার আনোয়ারুল ইসলামকে আসামি করে কাশিমপুর থানায় একটি হত্যা মামলা করেছেন।