বোরহানউদ্দিনে সাংবাদিক সম্মেলন

প্রকাশিত: ৬:৩০ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৭, ২০২১ | আপডেট: ৬:৩০:অপরাহ্ণ, আগস্ট ৭, ২০২১
বোরহানউদ্দিনে সাংবাদিক সম্মেলন

‘মাদকের প্রতিবাদ করায় মামলা দিয়ে হয়রানী করা হচ্ছে। আমার স্বামী এখন পালিয়ে বেড়াচ্ছে। দুই সন্তান নিয়ে অনেক কষ্টে দিন কাটাচ্ছি।’

শনিবার বিকালে বোরহানউদ্দিন শাহবাজপুর প্রেসক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলন করে এ কথাগুলো বলছেন বোরহানউদ্দিন উপজেলার কুতুবা ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড ছোট মানিকা গ্রামের জুয়েল এর স্ত্রী নাছরিন বেগম।

নাছরিন বেগম লিখিত বক্তব্যে বলেন, রফিক ওরপে কানা রফিক মাদক সহ ১৫টি মামলার আসামী। সে এখন তার শ্বশুর বাড়ীতে থেকে মদ, গাঁজা সহ মাদক সেবন ও বিক্রি করে আসছে। আমার স্বামী জুয়েল বড় বাড়ীর রাকিব ও মোক্তার, পাশের বাড়ীর আব্দুল্লাহ, রাকিব ওই মাদক বিক্রি করার প্রতিবাদ করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন রফিক ওরপে কানা রফিক। বিভিন্ন সময় আমাদের কে খারাপ ভাষায় গালি-গালাজ করে রফিক। সে কৌশলে তার স্ত্রী আরজু বেগম কে বাদী করে মিথ্যা মামলা দিয়ে আমার স্বামী সহ প্রতিবাদকারীদের হয়রানী করছেন। আমার স্বামী সহ প্রতিবাদকারীরা পুলিশের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। আমার স্বামী ইলেকট্রিশিয়ানের কাজ করে সংসার চালাতো। দুই সন্তান কে নিয়ে কষ্টে জীবন যাপন করছি।

তিনি আরোও বলেন, প্রশাসনের সুষ্ঠ তদন্তের মাধ্যমে এই মিথ্যা মামলা হতে আমার স্বামী জুয়েল সহ সকলের মুক্তি চাই। তিনি আরোও বলেন, রফিক আমাকে মেরে ফেলা সহ বিভিন্ন ক্ষতি সাধনের ভয়ভীতি দেখায়। আমি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। ওই সময় ৪নং আসামী রাকিব এর মা খুকু বেগম বলেন, আমার ছেলে বিনা দোষে জেল হাজতে রয়েছে। রফিক ওরপে কানা রফিকের মাদকের প্রতিবাদ করাই আমার ছেলের কাল হলো। আমি প্রশাসনের কাছে সুষ্ঠ তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জোর দাবী জানাচ্ছি।

ওই সময় রফিক ওরপে কান্না রফিকের স্ত্রী’র চাচাতো বোন ফিরোজা বেগম জানান, এ রফিক এলাকায় বহুদিন ধরে মাদক বিক্রি করছে। কেউ প্রতিবাদ করলে তাদেরকে বিভিন্ন মামলা দিয়ে হয়রানী করছে।

ওই সংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন জুয়েল এর মেঝো বোন মিনারা বেগম, রাকিব এর দাদী আংকুরা বেগম, নাছির ফরাজি প্রমূখ।