স্বাধীনতা দিবসে ভোলায় অগ্রদূত প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের আলোচনা সভা

মামুন মামুন

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১০:০৫ অপরাহ্ণ, মার্চ ২৬, ২০২১ | আপডেট: ১০:০৫:অপরাহ্ণ, মার্চ ২৬, ২০২১
স্বাধীনতা দিবসে ভোলায় অগ্রদূত প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের আলোচনা সভা

মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে ভোলায় অগ্রদূত প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ে দোয়া ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বেসরকারি সেচ্ছাসেবী সংগঠন অগ্রদূত সংস্থা-এএসের উদ্যোগে শুক্রবার বিকাল চারটায় উপজেলার উত্তর দিঘলদী ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডে অবস্থিত অগ্রদূত প্রতিবন্ধী বিদ্যালয় কক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক খায়রুল ইসলাম অন্তুর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন,ইউপি চেয়ারম্যান লেয়াকত হোসেন মুনসুর। স্বাগত বক্তব্য রাখেন,অগ্রদূত প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি জাকির হোসেন চৌধূরী।

অন্যন্যাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ওবায়দুল হক কলেজের প্রভাষক মাহাবুবুর রহমান, অগ্রদূত প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক শহিদুল ইসলাম, শিক্ষক হোসেন শুভ সহ আরও অনেকে।

এসময় অগ্রদূত প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি জাকির হোসেন চৌধূরী বলেন,জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ যাদের আত্মত্যাগের বিনিময় পেয়েছি স্বাধীন সার্বভোম বাংলাদেশ। সেসকল শহিদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন,বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সভাপতি, ভোলা-১ আসনের এমপি জাতীয় নেতা তোফায়েল আহমেদকে অগ্রদূত প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসের শুভেচ্ছা জানান তিনি। স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী এ দিনটি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর বছর। এবার তাই উদযাপনও যোগ হয়েছে ভিন্ন মাত্রায়। এর সাথে আরও একটি নতুন পলক যোগ হয়েছে স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণে জাতিসংঘের চুরান্ত সুপারিশ।

জাকির হোসেন চৌধূরী আরও বলেন,বেসরকারি সেচ্ছাসেবী সংগঠন “অগ্রদূত সংস্থা-এএসের ও ‘অগ্রদূত প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে মহান স্বাধীনতা ও সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন পালনে বাংলাদেশে আমন্ত্রিত সকল রাষ্ট্র নায়কদের জানাচ্ছি আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।

অগ্রদূত প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের উদ্যোগে আয়োজিত আজকের অনুষ্ঠানের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে তিনি আকুল আবেদন জানিয়ে বলেন, ২০২০ সালের ০১ জানুয়ারী সমাজসেবা মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তী অনুযায়ী সারা বাংলাদেশ থেকে অনলাইনে আবেদন করা প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়গুলো স্বীকৃতি ও এমপিওভূক্তি করার জন্য জোর দাবী করেন তিনি । প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অধিকার ও মর্যাদা রক্ষাসহ সকল ধরণের প্রতিবন্ধী শিশুদের শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ করে দেওয়ার জন্য এবং প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মচারীদের সরকারি সকল সুযোগ-সুবিধা গ্রহণে প্রতিবন্ধী সম্পর্কিত সমন্বিত বিশেষ শিক্ষা নীতিমালা,২০১৯ এর আলোকে বাস্তবায়ন করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকল দপ্তরের কর্মকর্তাদের নিকট অনুরোধ জানান তিনি।

পরে সকল শহীদদের রুহের মাগফেরাত কামনায় দোয়া মোনাজাত পরিচালনা করেন সিকদার বাড়ি জামে মসজিদ খতিব মাওলানা আবদুল খালেক।

এরআগে প্রধান অতিথি ইউপি চেয়ারম্যান লেয়াকত হোসেন মুনসুরকে ফুলের শুভেচ্ছা জানান অগ্রদূত প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি জাকির হোসেন চৌধূরী।